Spread the love

অসম-মনিপুর সিমান্ত সংলগ্ন জিরিঘাটের বিভিন্ন গ্রামীণ এলাকায় প্রতিদিন পেট্রোলিং করছেন কাছাড়ের পুলিশ সুপার নোমাল মাহাত্তা সহ বিশাল পুলিশ ও কমাণ্ডো বাহিনী।

সম্প্রতি জিরিবামে সংঘঠিত হিংসাত্মক ঘটনার পর মনিপুরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ৬ শতাধিকের অধিক মানুষ আসামের লক্ষিপুরে থাকা নিকটাত্মীয়ের ঘরে আশ্রয় নিয়েছেন।মনিপুরের ঘটনা কোনভাবেই যাতে আসামে আছড়ে না পড়ে সেদিকে লক্ষ্য রেখে রবিবার ফের জিরিঘাট এলাকার বিভিন্ন গ্রাম পরিদর্শন করে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন কাছাড়ের পুলিশ সুপার নোমাল মাহাত্তা।বিশাল কোমাণ্ডো সহ পুলিশ বাহিনী সঙ্গে নিয়ে পুলিশ সুপার এদিন সিমান্তবাসীর সঙ্গে কথা বলে এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার পাশাপাশি গুজবে কান না দেওয়ার জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।যদি কোন ব্যক্তি জিরিবাম ঘটনাকে কেন্দ্র করে সামাজিক গণমাধ্যমে গুজব ছড়ানোর প্রয়াস করে তবে সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে কড়া আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।এদিকে লক্ষিপুরের বিধায়ক কৌশিক রাই সংবাদ মাধ্যমকে জানান,জিরিবামে সংঘঠিত ঘটনার পর গত তিনদিনে ৬ শতাধিকের অধিক মানুষ আসামে স্বর্ণার্থী হয়ে এসেছে। রবিবার প্রায় ৩৫০ জন মানুষ লক্ষিপুরের জিরিঘাটে বসবাসকারী নিকটাত্মীয়ের ঘরে আশ্রয় নিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে আসাম সরকার মনিপুর থেকে আসা স্বরণার্থীদের সুবিধার্থে বিহিত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছেন। আসাম সরকারের নির্দেশনা মেনে কাছাড়ের পুলিশ সুপার সহ লক্ষিপুরের বিধায়ক কৌশিক রাই আসাম-মনিপুর সিমান্ত সংলগ্ন জিরিঘাটের বিভিন্ন গ্রামীণ এলাকার সরজমীন পরিদর্শন করে গোটা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন। এবং মনিপুর থেকে আসা স্বরণার্থীদের সুবিধার্থে বিহিত ব্যবস্থা গ্রহণের ও আশ্বাস দেন।


Spread the love

By Admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *