Spread the love

বরাক উপত্যকার আস্থার প্রতীক তারাপুর হনুমান ধান।

দীর্ঘ প্রায় ১০০ বছরের পুরানো শিলচরের তারাপুরের হনুমান মন্দির। এই মন্দির কে কেন্দ্র করে এখন গোটা বরাক উপত্যকার হনুমান ভক্তদের কাছে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ অনেকে বলেন ভক্তিতে কৃষ্ণ পাওয়া যায় তর্কে বহুদূর ঠিক সেভাবেই সেই হনুমান মন্দির কে কেন্দ্র করে ভক্তবৃন্দরা যা মানষ করেন সেটাই উনারা পান এবং এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দিনের পর দিন শিলচর তারাপুর হনুমান ধামের একদিকে যেমন ভক্তবৃন্দের সংখ্যা বাড়ছে তেমনি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে হনুমান ধানের পরিচালনা সমিতির উদ্যোগে।

প্রতি মঙ্গলবার রাত্রে সাতটার সময় সন্ধ্যা আরতি আর সেই সন্ধ্যা আরতিকে কেন্দ্র করে উৎসুক ভক্তরা নিজেদের বুক ভরা ভক্তি উজাড় করে ফল প্রসাদ প্রদান করেন হনুমানের নামে। তারপর চলে কীর্তন ভজন ।পূজা শেষ হওয়ার পর জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে যারাই সেখানে উপস্থিত থাকেন তাদেরকে কমিটির পক্ষ থেকে দেওয়া হয় প্রসাদ। অন্যদিকে প্রতিবছর হনুমান জয়ন্তীর দিন বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন মন্দির পরিচালন সমিতি। উনারা সকাল থেকেই বিভিন্ন রেলি বের করেন কোনটাতে পারে রাম সীতা তো হনুমান সেজে কচিকাঁচার া রামভক্ত হনুমানের গুণগান করতে করতে পুরো শহর ঘুরে বেড়ান। মন্দিরের পূজারীর বিশ্বাস যে এই মন্দিরে যখনই কোন ভক্তরা এসে নিজের মনোবাঞ্ছা পূরণের জন্য আবেদন করেন তার কিছুদিনের মধ্যেই সেই মনোবাসনা পূরণ হয়ে যায়।

দীর্ঘদিনের এই পুরানো মন্দিরকে ঘিরে এখন একদিকে যেমন ভক্তের সংখ্যা বাড়ছে অন্যদিকে মন্দির পরিচালন সমিতি মন্দির কে উন্নয়ন করতে এবং জনগণের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের সেবামূলক কাজ করার মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন।


Spread the love

By Admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *