Spread the love

রহমান নগর চা বাগানে এক যুবকের উপর দলবদ্ধ হামলা। গুরুতর আহত যুবক।  থানায় মামলা।

 

রবিবার দুপুরে গঙ্গানগর ৭ম খণ্ডের বাসিন্দা রহমান নগর চা বাগান থেকে দা হাতে নিয়ে পালৈ শাক কুড়িয়ে আনতে যায়। সেখানে গেলে কয়েকজন যুবক তাহাকে শাক কুড়িয়ে নিতে বাধা প্রদান করে এবং সেখানে থাকা রানা দাস, রনেন্দ্র দাস, মুনি দাস সহ অন্যান্য যুবকেরা তাকে বেধড়ক মারধর করে। সেই মারধরের ফলে গঙানগর ৭ম খণ্ডের বাসিন্দা প্রয়াত নিমার আলীর পুত্র আনর হুসেন অচেতন হয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় কিছু মানুষ তার পরিচয় পেয়ে বাড়িতে খবর দেন। পরে আনরের পরিবারের সদস্যরা সেখানে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে কচুধরম থানার সাহায্যে সোনাই প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাকে বাড়িতে নিয়ে যান। রাতে তার শারিরীক অবস্থা বেগতিক হয়ে পড়ে।  কোনো রকম রাত কাটিয়ে সকালে আবার কচুধরম থানায় নিয়ে এসে বিষয়টি অবগত করানো হয়। এবং সেখানে তার ভাই রমজান আলী মোট ৬ জনকে অভিযুক্ত করে এজাহার দায়ের করেন। এজাহার মতে অভিযুক্তরা হলেন, দিলীপ দাস, রাজু দাস, রানা দাস, সুরজ দাস, রনেন্দ্র দাস, মুনি দাস সহ অন্যান্যরা।

পরে আনরের অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে তড়িঘড়ি শিলচর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এদিকে আনরের কাকা বাবুল উদ্দিন সংবাদমাধ্যমকে জানান এবং তিনি পুলিশ প্রশাসনের কাছে সঠিক তদন্ত করে ন্যায় বিচার পাইয়ে দেওয়ার আবেদন করেন। পরে কচুধরম পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে দিলীপ রাজোয়ার ও রাজু দাসকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে।


Spread the love

By Admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *